বাংলাদেশকে উড়িয়ে সমতায় আয়ারল্যান্ড

প্রথম ম্যাচে সহজ জয় পেয়েছিল বাংলাদেশ ‘এ’ দল। তবে সেই ধারাটা ধরে রাখতে পারলেন না সফরকারীরা। দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে স্রেফ ওড়ে গেলেন তারা। বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে সৌম্য বাহিনীকে ৫১ রানে হারিয়েছে আয়ারল্যান্ড উলভস। সুদে-আসলে বদলার জয়ে তিন ম্যাচ সিরিজে ১-১ ব্যবধানে সমতা টানলেন স্বাগতিকরা।

বৃষ্টিবাগড়ায় বুধবার গড়াতে পারেনি ম্যাচটি। একদিন পিছিয়ে বৃহস্পতিবার রাতে গড়ায় দুদলের লড়াই। ম্যালাহাইড ক্রিকেট ক্লাব মাঠে টস জিতে আগে বোলিং নেন বাংলাদেশ অধিনায়ক সৌম্য সরকার। বৃষ্টিভেজা কন্ডিশনে মাত্র একজন পেসার নিয়ে খেলতে নামেন তিনি। তবে তার সিদ্ধান্ত অযৌক্তিক প্রমাণ করে ছাড়েন আইরিশ ব্যাটসম্যানরা। স্পিনারদের বেধড়ক পিটিয়ে নির্ধারিত ২০ ওভারে ২০২/৬ রানের পাহাড় গড়েন তারা।

আয়ারল্যান্ডের হয়ে সর্বোচ্চ ৪৭ রান করেন স্টুয়ার্টস থম্পসন। ৫ চার ও ১ ছক্কায় এ ইনিংস সাজান তিনি। উইলিয়াম পোর্টারফিল্ড ৪৫ ও গ্যারেথ ডেলানি করেন ৩৭ রান। এ ছাড়া হার্ডহিটার কেভিন ও’ব্রায়েনের ব্যাট থেকে আসে ৩০ রান। বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নেন সাইফউদ্দীন। ২ উইকেট ঝুলিতে ভরেন তাইজুল ইসলাম।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই ভয়াবহ বিপর্যয়ে পড়ে বাংলাদেশ। স্কোর বোর্ডে ৪৭ রান তুলতেই ৪ ব্যাটসম্যান খোয়ায় টাইগাররা। ৬০ রানে সাজঘরে ফেরেন আরও তিনজন। এতে বিশাল হারের চোখ রাঙানি দেয়। তবে অষ্টম উইকেটে ৪২ রানের জুটি গড়ে তা থামান নাঈম হাসান ও সাইফউদ্দীন। ১৫ ওভারে ১০৪/৭ রান করার পর আকাশ ভেঙে বৃষ্টি নামে। পরে আর খেলা হয়নি। ফলে বৃষ্টি আইনে স্বাগতিকদের ৫১ রানে জয়ী ঘোষণা করা হয়।

বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ ২৪ রান করে অপরাজিত থাকেন নাঈম। সাইফউদ্দীন অপরাজিত থাকেন ১৫ রানে। এ ছাড়া মুমিনুল ও জাকির হাসানের ব্যাট থেকে আসে ১৪ রান করে। বাকিরা যাওয়া-আসার মধ্যেই সময় পার করেন।

১-১ সমতা হওয়ায় শেষ ম্যাচটি অঘোষিত ‘ফাইনালে’ পরিণত হয়েছে। ফাইনালি লড়াই হবে আজ। এখন দেখার বিষয় সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে জিতে কে হাসে শেষ হাসি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *