কলকাতার টিভি চ্যানেলে আজ থেকে নতুন এপিসোড

অবশেষে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীর হস্তক্ষেপে কেটে গেল অচলাবস্থা। মিটে গেল কলকাতার টিভি চ্যানেলের শিল্পীদের দাবিদাওয়া। যদিও অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় বিষয়টিকে ‘শিল্পীদের দাবিদাওয়া’ বলতে নারাজ। তিনি গণমাধ্যমে বলেছেন, ‘আমি এটাকে দাবিদাওয়া বলতে চাই না। ১০ হাজার মানুষ এক সঙ্গে কাজ করলে সমস্যা হবেই। কোনো সমস্যা হলে কমিটি দেখবে যাতে কারও কোনো সমস্যা না হয়। আমি আবার বলছি, আমাদের কোনো দাবি নেই। সবাই মিলেমিশে কাজ করাটাই মোদ্দা কথা।’

প্রসেনজিৎ যে কমিটির কথা বলছেন, সেই কমিটি তৈরি করে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী স্বয়ং। কমিটিতে মুখ্য উপদেষ্টা হিসেবে রাখা হয়েছে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কে। আরো রয়েছেন প্রযোজক শ্রীকান্ত মেহতা, অভিনেতা প্রসেনজিৎ, পরিচালক অরিন্দম গঙ্গোপাধ্যায়। কলাকুশলীদের পক্ষ থেকে আছেন স্বরূপ বিশ্বাস, আছেন চিত্রনাট্যকার লীনা গঙ্গোপাধ্যায়। এছাড়া স্টার জলসা, জি বাংলা ও কালার্সসহ টেলিভিশন চ্যানেলগুলির প্রতিনিধিদেরও এই কমিটিতে রাখা হয়েছে।

কমিটির আশ্বাসে গত ছয়দিন কর্মবিরতির পর গতকাল থেকে টলিপাড়ার শুটিং শুরু হয়েছে। আজ থেকে কলকাতার টেলিভিশন চ্যানেলগুলোতে দেখা যাচ্ছে ধারাবাহিকগুলোর নতুন এপিসোড। ফলে টিভি চ্যানেল কর্তৃপক্ষ, প্রযোজক থেকে অভিনেতা-কলাকুশলীরা অনেকেই যেন স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলছেন। কেননা কলকাতার শিল্পী কলাকুশলীরা এ সময় দুর্গাপূজার অনুষ্ঠান তৈরিতে মনোযোগ দেন। বিজ্ঞাপনও এ সময় চূড়ান্ত হয়। টিভি ধারাবাহিক নিয়ে অনিশ্চয়তা জারি থাকলে সেই বিজ্ঞাপনের একটা বড় অংশ এফএম চ্যানেল বা অন্য কোনো মাধ্যমে চলে যাওয়ার আশঙ্কা ছিল।

মূলত আর্টিস্ট ফোরাম, ফেডারেশন, প্রযোজকদের সমস্যার কারণে বন্ধ ছিল শুটিং। অচলাবস্থার সময়ই জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘রানি রাসমণি’র অভিনেত্রী দিতিপ্রিয়া রায় শেয়ার করেছিলেন, সিরিয়ালের ব্যাঙ্কিং না থাকার সমস্যার কথা। সত্যিই বিভিন্ন স্লটে রিপিট টেলিকাস্ট দেখাতে বাধ্য হয়েছিলেন বিভিন্ন চ্যানেল। তবে পুনরায় চেনা ছন্দে ফিরেছে টালিগঞ্জ। আজ থেকে ফের দেখা যাবে নতুন এপিসোড। দিতিপ্রিয়া এ উপলক্ষ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় শুটিংয়ের ছবিও শেয়ার করেছেন। তিনি ক্যাপশনে লিখেছেন: ‘রোল, রোলিং, অ্যাকশন… বিহাইন্ড দ্য সিন… ব্যাক টু প্যাভিলিয়ন… কঠিন সময়ে আমাদের পাশে থাকার জন্য দর্শকদের অনেক ধন্যবাদ।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *